আমরাই পারি আমরাই পারবো সংগঠন টির

আমরাই পারি আমরাই পারবো সংগঠন টি দিনে একটি ভালো কাজ করবো স্লোগানে এগিয়ে যাওয়া আমরাই পারি আমরাই পারবো সংগঠন, ২০১৪ সাল থেকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও সমাজ সেবা অধিদপ্তর থেকে ছাড়পত্র পেয়ে কাজ করে আসছে। সংগঠন টি মনে করে আমরা সবাই যদি দিনে অন্তত একটি ভালো কাজ দিয়ে শুরু করি তবে প্রতিদিন সারা বাংলাদেশের  জনসংখ্যা অনুযায়ী ১৭ কোটি ভালো কাজ সম্ভব।

 

প্রথম দিকে দিনাজপুরে পার্বতীপুরে শুরু করে প্রায় ৫০ জনের ও অধিক প্রতিবন্ধী   ,বিধবা ,এতিম ও অসহায় দের হস্তশিল্প ,চিত্রাঙ্কন ,কম্পিউটার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করলেও পরে ঢাকায় এসে আরো বড় করে সারা দেশব্যপী  কার্যক্রম  চালানো হয়।

আমরাই পারি আমরাই পারবো সংগঠন সব সময় উন্নয়নে বিশ্বাস করে , তাই  এখানে আমাদের সংগঠন টি প্রতিবন্ধী , বেকার, অসহায় , এতিম , সুবিধা বঞ্চিত ও বিধবা দের প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে স্বাবলম্বী করে কাজ পেতে সহায়তা করে থাকে । 

 

আমাদের সংগঠন টি আপনার বাসায় ব্যবহার না করা যেকোনো জিনিস যেমন – পোষাক  , ফার্ণিচার   , বই , ইলেক্ট্রনিক্স গ্যাজেট  , শিশু  দের  খেলনা  ইত্যাদি ব্যবহার সামগ্রী ঠিক করিয়ে অসহায় মানুষদের বিতরণ করে  যেন তারা তা কাজে লাগিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে পারে।

———আমাদের বিগত দিনে যে ব্যতিক্রম ধর্মী উদ্যোগ  কাজ করেছি —-

 

আমরা ঘরে বসে থাকা প্রায় ২৫০ জনের  অধিক নারী  পুরুষ দের  হতাশা , মাদক  বেকারত্ব থেকে দূরে রাখতে প্রশিক্ষণ দিয়ে স্বাবলম্বী  করেছি।

যেন কেও সমাজে খারাপ কাজে লিপ্ত না হয়। আমরা মনে করি কেউ প্রশিক্ষণ নিয়ে স্বাবলম্বী  হলে তার আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় না।

যেমন একজন নারীর স্বামী ছেড়ে  চলে গেলে অথবা স্বামী মারা যাবার পর সমাজে অনেক অত্যাচারিত হয় ,ফলে পরিবারকে চালানোর জন্যে অনেক ধরণের কাজে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ও করতে হয় । তাই ওই বিধবা ,অসহায় মহিলাকে যদি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কোনো কিছু ফ্রি তে শিখাতে পারি তবে তাকে আর কোনো অসামাজিক কাজে লিপ্ত হতে হবে না।

তেমনি একজন বেকার কে যদি উদ্যোক্তা হতে সহযোগিতা করি তবে তাকে মাদক বা সমাজে কোন খারাপ কাজ করতে হয় না।

আমরা মনে করি প্রশিক্ষণের বিকল্প কিছু নেই। তাই আমরা মনে করি প্রশিক্ষণ  নিবো সাবলম্বী হবো ,সোনার বাংলাদেশ গড়বো।

*সংগঠনটি  ঘরে ঘরে  অসহায় নারী পুরুষ দের  নিয়মিত উদ্যোক্তা হতে সহযোগিতা করে যাচ্ছে ।

মাদক নির্মূল করতে স্কুল কলেজে নিয়মিত মাদকের অপকারিতা এর উপর প্রিন্সিপাল দের  সাথে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে 

* সংগঠন টি প্রায় ১৫০ জনের ও অধিক ছাত্র -ছাত্রী মাদকাসক্তদের ভালো করেছে  কোনো রকম ঔষধ ছাড়া স্নেহ মমতা ও ভালবাসা দিয়ে।

রোহিঙ্গা দের  জন্যে ঢাকা থেকে আমরা প্রতিক্ষন ফাউন্ডেশন ও আরো অনেক  ফাউন্ডেশন  এর দান  করা এক ট্রাক কাপড়  খাদ্য সামগ্রী দিয়ে সহযোগিতা  হয়েছে  ।

 

* ২০১৮ থেকে ডেঙ্গু মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছে  নিরলস ভাবে।

* ২০১৯ সালে ভালো কাজ করার জন্যে ইন্ডিয়ান বিদায়ী রাষ্ট্রদূত হারর্স ভার্দন শৃংলা সংগঠন টি কে  পুরুস্কৃত করেছেন।

* ২০২০ সালে করোনা দুর্যোগ মোকাবেলায় মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশে আপনাদের কে পাশে নিয়ে আমরা রমজান মাসে সেই সময়ে  একশ্রেণীর মানুষ রাস্তায় বার বার সাহায্য পাচ্ছে , যারা চাইতে পারে তারা সব জায়গায় হাত পাততে পারে কিন্তু ভালো মধ্যবিত্ত পরিবাররা আত্ম  সম্মানের ভয়ে সবার কাছে চাইতে পারে না , মধ্যবিও এই মানুষগুলো না পারছে রাস্তায় ভিক্ষে করতে, না পাচ্ছে সরকারি সহযোগিতা,  কাছের মানুষ দের বললে করছে উপহাস ,যেসব ভালো ঘরের মধ্য  বিত্তরা কাজ হারিয়ে বাসায় বসে ছিল , যেসব বৃদ্ধ বাবা- মা  ঔষধ পাচ্ছিলো না , শিশুরা পাচ্ছিলো না ডিম ,দুধ ,গর্ভবতী মায়েরা পাচ্ছিলো না কোন পুষ্টিকর খাবার ,ঔষধ ও টেস্ট, তাদের আমরা খুজে  খুজে  আমাদের ডোনার দের সাহায্য পৌঁছে দিয়েছি প্রায় ৩২০ টি পরিবারের মাঝে ।

২০২০ সালের রমজান মাসের করোনা মোকাবেলায় সংগঠনের  সংক্ষিপ্ত কার্যক্রম           

২০২০ ঈদ উল আয্হা কোরবানি  তে যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে –

* করোনায় আক্রান্তদের  এ্যাম্বুলেন্স পেতে সহযোগীতা , স্বাভাবিক  এম্বুলেন্স এ  অনেকেই করোনা রো গী বা লাশ উঠাতে   চান না

*  মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন, অধিকাংশ লাশ মর্মান্তিকভাবে দাফন হয়

Check Also

আত্রাইয়ে আগাম শীতকালীন সবজি চাষে ব্যস্ত কৃষক

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: শীত আসতে আর কিছু দিন বাঁকি। এ সময়টা মূলত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *