ডোমারে নদী ভাঙ্গনে দোমুখা গঙ্গামাতা মন্দির ও শ্বশান হুমকির মুখে

গোপাল চন্দ্র রায় -ডোমার প্রতিনিধি- নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সদর ইউনিয়নের ছোট রাউতা এলাকায় দেওনাই ও শালকী নদীর মিলন স্থলে দেওনাই নদীর ভাঙ্গনে দোমুখা গঙ্গামাতা, বিষ্ণু মন্দির ও শ্বশান ঘাটটি হুমকির মুখে পড়েছে।
এবারের বন্যায় ও পাহাড়ী ঢল এবং দেওনাই নদী খননের কারনে স্রোতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় নদীর পাড় ভেঙে মন্দিরের পিছনের অংশ ও শ্বশানের বেশীর ভাগ নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। যেকোন সময় বাকী অংশটুকু বিলিন হওয়ার আশংকা করছে এলাকাবাসী।
 জানা গেছে,সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ছোট রাউতা এলাকার ব্রাহ্মণ পাড়া,জেলে পাড়া,ছোট ভুজারী পাড়া ও বড় ভুজারী পাড়ার কয়েক হাজার সনাতন ধর্মাবলম্বী মন্দিরে অষ্টমী স্নানসহ বিভিন্ন পুজা অর্চনা এবং শ্মশানে লাশ দাহ করে থাকে। অষ্টমী স্নানের সময় মন্দির প্রাঙ্গনে দোমুখো বান্নী নামে গ্রামীন মেলা বসে। শ্বশান পরিচালনা কমিটির সভাপতি পবিত্র কর্মকার জানান,দেওনাই নদী এবারে খনন করার কারনে পানির শ্রোতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় নদী ভাঙ্গন বৃদ্ধি পেয়েছে। শ্বশানে প্রায় এক একর জমি রয়েছে। এরমধ্যে দুবিঘা জমি নদীতে চলে গেছে। আরও একটি বন্যা হলে মন্দির ও শ্বশান নদীগর্ভে বিলিন হয়ে যাবে।সাধারণ সম্পাদক জয়দেব রায় জানান, মন্দির ও শ্বশানকে রক্ষা করতে শক্ত একটি বাঁধের প্রয়োজন। বাঁধটি নির্মানে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

Check Also

লক্ষ্মীপুরে ৭৬ মণ্ডপে চলছে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

বছর ঘুরে দুয়ারে এসেছে দুর্গোৎসব। হিন্দু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে এখন উৎসবের ঢেউ। ক’দিন পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *