বিদায় হাসানুজ্জামান স্বগতম মুনতাসিরুল ইসলাম

বিদায় হাসানুজ্জামান স্বগতম মুনতাসিরুল ইসলাম
ঝিনাইদহের মানবিক পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামানকে কক্সবাজারে বদলি, যোগদান করলেন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার মুনতাসিরুল ইসলাম
স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের মানবিক পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান (পিপিএম বার) কে বর্তমানে আলোচিত জেলা কক্সবাজারে বদলি করা হয়েছে। ঝিনাইদহের নতুন পুলিশ সুপার হিসাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার মুনতাসিরুল ইসলামকে। বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপণে এই তথ্য জানানো হয়েছে। মুনতাসিরুল ইসলাম ডিএমপির লজিস্টিক শাখায় কর্মরত ছিলেন। বিসিএস ২১ ব্যাচ থেকে সুপারিশ প্রাপ্ত হয়ে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। তার প্রথম কর্মস্থল ছিল আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। পরে তিনি পুলিশের বিশেষ শাখার ইমিগ্রেশন বিভাগ, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া সার্কেলের এএসপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এসপি পদমর্যাদা হিসেবে ২০১৫ সালে প্রথম যোগদান করেন ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ডিসি মিডিয়া (উপ-পুলিশ কমিশনার) হিসেবে। অপরাধ নিয়ন্ত্রণে ডিএমপির সেরা বিভাগ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে লালবাগকে। অনুসন্ধানে জানা যায়, ইতিমধ্যে পুলিশের লালবাগ বিভাগের অন্তর্ভুক্ত সকল থানা এলাকাতেই পূর্বের তুলনায় হ্রাস পেয়েছে নানাবিধ অপরাধ কর্মকান্ড। এক সময়ের পুরান ঢাকার নবাবপুর, তাঁতিবাজার, সিদ্দিক বাজার, আলুবাজার ছিল একটি ছিনতাই প্রবন এলাকা। আর বর্তমানে এই সব এলাকায় ছিনতাই, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ অন্যান্য অপরাধ নেই বললেই চলে। ছিনতাই ও চাঁদাবাজি ঠেকাতে এই এলাকাগুলোতে পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ক্রস পেট্রলিং ও বøক রেইড পদ্ধতি। যেখানে প্রতিটি পুলিশের টিমে একজন সিনিয়র অফিসার দারা নিয়ন্ত্রণ হয় অভিযানিক টিম। এদিকে ঝিনাইদহ পুলিশে সুপারিন্ডেন্ট হিসাবে যোগদানের পর পুলিশের পেশাদারিত্ব ও সেবার প্রশ্নে আমুল পরিবর্তন নিয়ে আসেন হাসানুজ্জামান। তিনি জিডি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্সসহ যাবতীয় কাজে পুলিশের ঘুষ খাওয়া বন্ধ করেন। করেছেন মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার। দায়িত্বে অবহেলা ও দুর্নীতি পরায়ন অফিসারদের শাস্তির আওতায় এনে পুলিশকে করেছে সুশৃঙ্খল। তাই তার এই বদলি ঝিনাইদহে সেবা প্রত্যাশি ও নাগরিক নিরাপত্তা ভাবনার মানুষের মনে চিন্তার ছাপ এনে দিয়েছে।

Check Also

ভেতরে অঝোরে কান্না আটকের পর বাইরে এসে হাসি

র‌্যাব সদস্যদের দেখেই কান্না শুরু কিন্তু আটকের পর হাওয়া সেই কান্না। উল্টো অট্টহাসিতে গণমাধ্যমের ক্যামেরাবন্দী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *