বিরামপুরে কোভিট-১৯,করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জুমার নামাজ বাদ সচেতনতা মূলক বক্তব্যে মালেক মন্ডল

বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি মোঃ রেজওয়ান আলী-বিরামপুর উপজেলার ইউনিয়নের এলাকায় জুম্মার নামাজ শেষে কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও এলাকার উন্নয়নে সচেতনতার উপর কথা বলেন আব্দুল মালেক মন্ডল।

তিনি ৪নং দিওড় ইউনিয়নের বৈদাহার গ্রামের স্হায়ী বাসিন্দা ও কৃতি সন্তান এবং বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ আঃ মালেক মন্ডল,নামাজ শেষে মসজিদের সকল মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে সালাম বিনিময়ের মাধ্যমে কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতায় বক্তব্যে বলেন-সকলেই মোটামুটি সুস্থ্য ও ভালো আছেন।
কোভিড-১৯ এর বৈশ্বিক মহামারীর এই ক্রান্তিকালে জীবন যাপন আমাদের জন্য হয়ে উঠেছে অনেক উদ্বেগ ও উৎকন্ঠার। প্রতিদিনই মৃত্যর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে,সীমিত আকারে পিসিআর টেস্টের পরও করোনা শনাক্তের সংখ্যা হু হু করে বেড়েই চলেছে প্রতিদিন। টেস্ট সংখ্যা বাড়ুক আর নাই বাড়ুক,মোটামুটি দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কয়েক লাখ ছাড়িয়েছে তা সহজেই অনুমেয়।
এত সর্তকতার পরও আমাদের টনক নড়েনি;আমরা প্রতিনিয়ত আমাদের প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে প্রায় সবসময়ই মাস্ক ছাড়া বাড়ির বাইরে চলাফেরা করছি। মোটেও ইহা করা আমাদের ঠিক নয়,
করোনা নিরাপত্তা বেষ্টনী একেবারে ভেঙ্গে গেছে বলা চলে। দুঃখজনক হলেও সত্য,সরকার ও বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা হতে বারবার কঠোর সতর্কতা জারি করা হলেও আমরা কেউই এই সতর্ক বার্তা বিন্দুমাত্র পাত্তা দেইনি।সবাই দেদারসে একজায়গা হতে আরেক জায়গায় মুভ করেছি।শহর হতে গ্রামে,শহরের একপ্রান্ত হতে আরেক প্রান্তে, বাজারে,শপিংয়ে,পার্কে,একবাসা হতে আরেক বাসায়,রেডজোন হতে  সেইফজোন সব একাকার হয়ে গেছে।
দুঃখজনক হলেও সত্য,অধিকাংশ মসজিদেও এই মহামারী করোনার সময় সরকারি নির্দেশনা মেনে নিরাপত্তা নির্দেশনা পুরাপুরি মানা হয়নি।
এই অবস্থায় করোনা ভাইরাস তার ভয়ংকর বিস্ফোরণের দ্বার প্রান্তে এসে দাড়িঁয়েছে। কত সংখ্যক মানুষের মাঝে নতুন করে করোনার সংক্রমণ ঘটেছে তা আমরা কেউই ধারণা করতে পারছিনা। এই সময় জনসাধারণের ব্যাপক ঘুরাফেরা চলাচলের ফলে হাজার হাজার মানুষ নিশ্চিত সংক্রমিত হয়ে পড়েছে।

আমাদের মধ্যে যারাই সংক্রমিত হই না কেন,কারো লক্ষণ প্রকাশ পাক আর না-ই পাক ; আমাদের উচিৎ আরও বেশি সতর্কতা অবলম্বন করা। যাতে করে আমরা সকলেই নিরাপদে থাকতে পারি এবং আমাদের প্রিয়জনদেরকেও নিরাপদে রাখতে পারি। এই সময় একজন অসতর্ক ও দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষ শত শত লোককে রোগাক্রান্ত করে ফেলতে পারে।

আর তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ, আপনারা সকলে আগামী দিনগুলোর জন্য আরো সর্তক হোন একেবারে নিরাপদ স্থানে থাকুন। নিজে নিরাপদ থাকুন,পরিবারকে নিরাপদ রাখুন,এই কয়দিন দায়িত্বপূর্ণ আচরণ করুন। একজন পরিবারের,সমাজের দায়িত্বশীল হিসেবে,স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে নিজেদের,নিজের পরিবার,স্বজন ও প্রতিবেশীর বেচেঁ থাকার নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।
সবশেষে তিনি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তাকে ৪ নং দিওড় ইউনিয়ন বাসির উন্নয়ন মূলক কাজ করার সুযোগ দিয়ে একজন যোগ্য নেতা হিসেবে সকলের পাশে থাকার প্রত্যয়ে সবার কাছে দোয়া চেয়ে তার বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

Check Also

পাকেরহাট সরকারী কলেজে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার পাকেরহাট সরকারী কলেজে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *