মোহনগঞ্জে ৬৬ আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

 

কৃষ্ণ কুমার শুভ, নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার হাওরাঞ্চল মোহনগঞ্জে ক্ষমতাশীল আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও ভাংচুরের ঘটনায় দ্রæত বিচার আইনে দু’টি মামলা দায়ের হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল আমিন এবং বড়কাশিয়া-বিরামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূর আহমেদ বাদী হয়ে মোহনগঞ্জ থানায় রোববার রাতে এ দুটি মামলা দায়ের করেন। মোহনগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল আহাদ খান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদ ইকবালের পক্ষ থেকে দায়ের করা এ দু’টি মামলায় ৩৩ জন করে মোট ৬৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলেন, বড়কাশিয়া-বিরামপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দুলাল, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন, পরাজিত ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজল তালুকদার, শ্রমিক নেতা আকিকুল ইসলাম, মোহনগঞ্জ পৌরসভার মেয়র এ্যাডভোকেট লতিফুর রহমান রতনের ছেলে লুৎফুর রহমান রাইয়ান, মাঘান-সিয়াধার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু বকরের ছেলে আবু রায়হান প্রবান, যুবলীগ কর্মী মাহবুব হাসান পিয়াস, জামাল উদ্দিন, সুজন, মান্না প্রমুখ। আসামীরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র লতিফুর রহমান রতনের সমর্থক নেতাকর্মী। এদের বিরুদ্ধে অতর্কিত হামলা, দোকানপাট ও বাসাবাড়ি ভাংচুর, দাঙ্গা সৃষ্টি প্রভৃতি অভিযোগ আনা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাতে একটি তালাবদ্ধ নির্বাচনী কার্যালয় খোলার বিষয় নিয়ে মোহনগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের দুই গ্রæপের মধ্যে এক সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়। এলাকায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পরদিন র‌্যাবের টহল অব্যাহত রাখা হয়।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল আহাদ খান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে সোমবার দুপুরে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারের জন্য তদন্তকারী কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে অভিযান চলছে।

Check Also

নারীদের তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার বৃদ্ধিতে উঠান বৈঠক

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির: তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে নারীদের উদ্বুদ্ধ করতে বাগেরহাটে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *