নলছিটির সুবিদপুরে নৌকার মাঝি হতে চান ৮ প্রার্থী!

মনির হোসেন বরিশাল \ ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার ৫ নং সুবিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের আগামী ২০২১সনের নির্বাচনী হাওয়া বইছে।বসে নেই এখানের সম্বব্য প্রর্থীরা।তারা আগে ভাগেই নির্বাচনী এলাকায় তাদের যোগ্যতা,দক্ষতা,শিক্ষকতা যোগ্যতা,উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন সমান তালে। পুরাতন এবং নতুন সম্ভাব্য প্রার্থীরা আওয়ামীলিগের হাই কমান্ড থেকে শুরু করে এলাকার ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা কর্মিদের সাথে সক্ষতা বজায় রেখে চলছেন।কেউ কেউ আবার লবিং তদি¦র ও গ্রæপিংয়ে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন।তারা তাদের মুল্যবান সময় নষ্ট করে,ব্যবসায়িক কাজ ছেড়ে এলাকায় সাধারন ভোটারদের মাঝে ব্যাপক গনসংযোগ সহ বর্তমান করোনা দুর্যোগ মুহুর্তে প্রার্থীদের নিজ গ্রাম সহ প্রতিটা গ্রামে ত্রান কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন।কেউ আবার প্রার্থী হবার আগ্রহ প্রকাশ করে তাদের নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজ বুকে আকার ইংঙ্গিতে প্রার্থী হবার স্টার্ডাস দিয়ে দোয়া চাইছেন।এবং তাদের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ,বংশ,পেশাগত দক্ষতা,স্বভাব চরিত্র ও নানাদিক তুলে ধরে ফেইজ বুকে স্টার্ডাস দোয়া চাইছেন।কেউ আবার প্রকাশ্যে তাদের প্রাতিপক্ষকে ঘায়েল করতে বিগত দিনের কর্মকান্ড এবং তার অনিয়ম,দুর্নিতি তুলে ধরে ফেইজ বুকে লেখালেখি করে তাদের পুরানো শত্রæতার জের মেটানোর ফায়দা লুটছেন।এলাকার কয়েকজন বর্ষিয়ান প্রবীন রাজনিতিবিদরা এ গুলো তামাসা দেখছেন এবং তারা নিরব ভূমিকায় তাদের প্রচারনা ও লবিং তদ্বির বজায় রেখে চলছেন।বসে নেই ওই ইউনিয়নের মেম্বার কোরামের সদস্যরা তারা বর্তমান চেয়ারম্যান কে অনাস্থা দিয়ে তাদের মধ্যে ও একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষনা করছেন।তারা অক্লান্ত পরিশ্রম করে দিন রাত পরিশ্রম করে তাদের মনোনীত প্রার্থী কে মনোনয়নের প্রত্যাশায় লবিং করছেন।এ পর্যন্ত ্ঐ ইউনিয়নে প্রায় ৮ জন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে,্এরা হলেন..
(১)মো:আব্দুল মান্নান সিকদার,বর্তমান চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন আওয়ামীলিগের সাধারন সম্পাদক যিনি দীর্ঘদিনের ত্যাগী আওমীলিগ নেতা দুর্দিনের কান্ডারী,হিসাবে পরিচিত,তিনি দলীয় প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান হয়ে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন ও দলীয় কর্মকান্ডে এগিয়ে রয়েছেন।তার দাবী তার অভিবাবক সাবেক শিল্পমন্ত্রী আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু এমপি তাকে পুনরায় মনোনয়ন দিলে অসামাপ্ত কাজের উন্নয়ন করা হবে।
(২)মো: মিজানুর রহমান ফোরকান, সুবিদপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামীলিগ নেতা বিশিস্ট সমাজ সেবক, তিনি সদালাপী,এসপষ্টবাদী ও ক্লিন ইমেজের ব্যাক্তিত্ব বজায় রেখে চলছেন। তিনি ছাত্রজীবন থেকেই সমাজ সেবা কাজে তাকে নিয়োজিত রেখেছেন।তিনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ্এলাকার সাধারন মানুষের হয়ে কাজ করতে চান।
(৩)আলহাজ্ব ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন মল্লিক।ঝালকাঠি জেলা সেচ্ছা সেবক লীগের সহ সভাপতি ও বিজি ইউনিয়ন একডেমী বাহাদুরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও দাতা সদস্য
তিনি একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও
তরুন রাজনীতিবিদ এবং শিক্ষানুরাগী।তিনি বিগত দিন থেকে আওয়ামীলীগের সকল কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করছেন এবং এলাকার সাধারন জনগনের সাথে কুশল বিনিময় করছেন।তিনি বর্তমান করোনা দুর্যোগ মূহুর্তে এলাকার গরীব ও অসহায়দের মাঝে আর্থিক সুবিধাসহ খোজখবর অব্যাহত রেখেছেন।
(৪)মো: মিজানুর রহমান হাওলাদার, সুবিদপুর ইউনিয়ন আ,লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান সু্িবদপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়র্ডের ইউপি সদস্য ঢাকা হাইকোর্টের (আইনজীবি সহকারী)বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী তরুন সমাজ সেবক,তিনি নিজের যোগ্যতায় এবং দলীয় মনোনয়ন পেলে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষনা দিয়ে এলাকায় ব্যাপক গনসংযোগ চালাচ্ছেন।সক্ষতা বজায় রেখে চলছেন দলীয় নেতা কর্মিদের সাথে।তিনি কনিষ্ঠ ইউপি সদস্য হিসাবে সরকারের দেয়া বরাদ্ধ থেকে এবং নিজ অর্থায়নে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করে নিজেকে সাড়া ফেলেছেন।তিনি জনপ্রিয়তায় এগিয়ে আছেন।
(৫) কবি মো: আব্দুল গফ্ফার খাঁন।তিনি একজন আদর্শ ব্যাক্তিত্ব ও জন্মসূত্রে আওয়ামিলীগ পরিবারের দাবীদার,উন্নয়ন সংগঠক ও বিচক্ষন বুদ্ধিমত্ব,ন¤্র,ভদ্র মানুষ।তিনি এর অগে প্রকাশ্যে রাজনীতিতে মাঠে না থাকলেও তিনি আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান হিসাবে এ বছরে প্রকাশ্যে রাজনিতিতে কোমড় বেধে মাঠে নেমেছেন।এর আগে ব্যাবসা নিয়ে সময় পার করছেন।বর্তমানে তিনি তালতলা বাজারে ও বরিশালে অবস্থিত বিসিডিএস নামে একটি বেসরকারী এনজিওর নির্বাহী পরিচালক হিসাবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে এলাকায় আর্থিক সুবিধা ও বর্তমান করোনাকালীন মুহুর্তে ত্রান সহায়তা দিয়ে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন।
(৬)মো: আব্দুর রহিম হাওলাদার, তিনি একজন ঢাকাস্থ বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা।তিনি এলাকায় সবার পরিচিত মুখ সে ওই ইউননিয়নে অরো কয়েকবার বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ-বিএনপি প্রার্থীদের সাথে প্রতিদ্বন্ধী এবং আওয়ামীলীগের প্রার্থীর সাথে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে মাঠে লড়ছেন।
(৭) মো:আমির সোহেল মল্লিক,তিনি উদিয়মান সর্বকনিষ্ট নলছিটি উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ,তিনি ও সবার পরিচিত মুখ।সে ওই ইউননিয়নে অরো কয়েকবার বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ-বিএনপি প্রার্থীদের সাথে প্রতিদ্বন্ধী এবং আওয়ামীলীগের প্রার্থীর সাথে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে মাঠে লড়ছেন।তিনি বর্তমানে আ,লীগের মনোনয়ন ভাগিয়ে নিতে মাঠে দৌরঝাপ ও লবিং তদ্বির ও গ্রæপিং মিশনে ব্যাস্ত রয়েছেন।এলাকায় তার ব্যাপক পরিচিতি ও নাম শোনা গেলেও তার প্রতিপক্ষরা এলাকার কিছু আসাধু লোকজন তার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে নানা অভিযোগ তুলছেন।তিনি একজন আ,লীগের দুর্দিনের কান্ডারী ও পরিক্ষীত সৈনিক।তার দাবী আমাদের অভিবাবক ১৪ দলের মূখপাত্র জননেতা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু এমপি যাকে মনোনয়ন দিবেন তার সাথে মাঠে নৌকার হাল ধরবেন।(৮) এ্যাডভোকেট খাঁন মশিউর রহমান পনির।তিনি একজন সাবেক ছাত্রলীগনেতা।বর্তমানে ঢাকা জজকোর্টের একজন বিশিষ্ট আইনজীবী।তিনি প্রকাশ্যে চেয়ারম্যানপদে প্রার্থীর ঘোষনা না দিলেও তার নিজস্ব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ক্ষুদেবার্তায় তার আকার ইঙ্গিতে বলে দেয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি এই প্রথমবারের মতো দলীয় মনোনয়ন পেলে নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে পারেন বলে জানাগেছে।তিনি অত্যান্ত ভদ্র ও উদার মানষিকতার লোক। তার দাবী তিনি এমন সুযোগ পেলে জনগনের সোবায় নিয়োজিত থাকবেন।এ ছাড়াও আরো প্রার্থী হতে পারেন বলে একাধিক সুত্রে জানাগেছে।

Check Also

শিবচরে বাল্কহেড ও স্পিডবোট সংঘর্ষ, ১৭ জনের মরদেহ উদ্ধার

মাদারীপুরের শিবচরের বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে বালুবোঝাই বাল্কহেড ও স্পিডবোটের সংঘর্ষে ১৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *