নলছিটির সুবিদপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থীতা প্রত্যাশায় আ,লীগ নেতা আমির সোহেল মাঠে 

আধুনিক ইউনিয়ন উপহার দেয়ার প্রতিশ্রুতি
নলছিটির সুবিদপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থীতা প্রত্যাশায় আ,লীগ নেতা আমির সোহেল মাঠে
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
আসন্ন ইউপি নির্বাচনে জেলার নলছিটি উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা আমির সোহেল মল্লিক আগে ভাগেই মাঠে নেমেছে। তিনি এবার দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় জনসর্মথন আদায় এবং সংগঠনিকভাবে নিজেকে উপস্থাপনে তার নির্বাচনী ভাবনার প্রেক্ষাপটে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রতিশ্রু দিয়েছেন। ইতিমধ্যে বেশ সাড়াও ফেলেছেন। প্রতিদিনই চলছে তার কম বেশি নির্বাচনী প্রস্ততিমূলক প্রচারনা।
উল্লেখ্য ইতি পুর্বে দুই দফা তিনি ইউপি নির্বাচনে অংশ নিয়ে ব্যাপক সমর্থন পেলেও কৌশলী রাজনীতির যোগবিয়োগে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হন। অবশ্য সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত সর্বপরি জেলা আ’লীগের কান্ডারী কেন্দ্রিয় উপদেষ্ঠা পরিষদের অন্যতম নেতা আমির হোসেন আমুর নিদের্শে সাড়া দিয়ে তার প্রার্থীতা শেষান্তে প্রত্যাহার করে নেয়। এবারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া নিয়ে শতভাগ আশাবাদী । তিনি বলেন আমার নেতা ও অভিভাবক আলহাজ্ব আমির হোসেন আমুর নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে মেনে রাজনীতি করি। সেক্ষেত্রে এবারকার প্রার্থীতা চুড়ান্তে নেতা ইতিবাচক ভূমিকা রাখলে তিনি নৌকার মাঝি হতে পারেন। এমনটি প্রত্যাশা করে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যায় নিয়ে সুবিদপুর ইউনিয়নকে আধুনিক ইউনিয়ন গড়ার স্বপ্ন দেখছেন বলে জানান । তার দাবী, সুখ-দুঃখে সব সময় এলাকাবাসির পাশে আছি এবং থাকবো।
আমির সোহেল মল্লিকের রাজনীতির বাহিরেও আলাদা একটি পরিচিতি রয়েছে। যেমন দলের জন্য ত্যাগী তদরূপ উপজেলা অন্যায়ের প্রতিবাদী হিসেবে প্রায় একযুগকাল তিনি মিডিয়ার সাথে জরিত। ত্যাগের উদারন সৃষ্টি করা এই তরুন নেতা কি ভাবে এলাকার উন্নয়ন সাধন করা যায় তার স্বাক্ষর রাখতে গিয়ে ড্যানিডা প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন স্থানে সড়ক সংস্কার কাজ করেন। এছাড়াও নিজ অর্থায়নে দূর্যোগ কালীন সময় অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে হাত বাড়িয়ে দিয়ে স্বল্প সময়ের ব্যবধানে জনগনের নেতা হিসেবে আমির সোহেল মল্লিক পরিচিত মূখ হয়ে উঠেছেন।
পিছনের সকল ভুল ক্রটি সংশোধন করে পরিবর্তনের নতুন ধারা সৃষ্টিতে নয়া আঙ্গিকে ৫নং সুদিবপুর ইউনিয়ন পরিষদকে একটি মডেল আধুনিক ইউনিয়নে রূপান্তরের লক্ষে তিনি বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। আশাবাদি এবারকার নির্বাচনে দল তাকে মনোনয়ন দিলে সেই পূরন সহায়ক হবে।
সদা হাস্যজ্জল এই উদীয়মান তরুন নেতাকে এলাকাবাসিও চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়। জনপ্রিয়তা ও জনসমর্থন সব ক্ষেত্রেই সম্ভব্য অপরাপর প্রার্থীরা সোহেলকে প্রতিপক্ষ ভেবে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের ফাঁদে ফেলে মাঠ ছাড়া করতে চেয়েছিল। কিন্তু নিজ গুনাবলীতে সেই ষড়যন্ত্রের ফাঁদ ডিঙ্গিয়ে নিজেকে এমন জায়গায় নিয়ে উপস্থাপন করেছেন যা প্রতিপক্ষের কাছে ঈর্ষার কারন হয়ে দাড়িয়েছে। তাতেও সে অদম্য নয়। তার বড় শক্তি সাংগঠনিক কারিশমা ও পারিবারিকভাবে আ’লীগ ঘরনার সন্তান। যা থেকে জনসমর্থন আদায়ে সহায়ক হওয়ায় এবার আ’লীগের যুক্তসই প্রার্থী হিসেবে তাকে ভাবা হচ্ছে। তিনিও এগিয়ে যাচ্ছেন লক্ষ অর্জনে।
আমির সোহেল মল্লিক বলেন, তার নেতা ও রাজনৈতিক অভিভাবক আমির হোসেন আমু এমপি। সুতরাং তার নির্দেশনা বাহিরে তিনি কিছুই করতে নারাজ। তার আর্শিবাদ নিয়েই নির্বাচনী মাঠে নেমেছে, এমনটি দাবী করে সোহেল বলেন, বিগত দুইবার দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হলেও তিনি দল এবং আদর্শচ্যুত হননি। ফলে তার প্রার্থীতার যৌতিকতা আছে। এখন মুল্যায়নের পালা। সেই অপেক্ষায় ধর্য্য ধারন করে এবার মাঠে নেমেছে অন্তত ত্যাগের মূল্যায়নে নৌকার মাঝি হতে, সেটা হতে হবে সুবিদপুরে।

Check Also

বরিশালে ছাত্র মৈত্রীর প্রতিষ্ঠা বাষিকী পালন

  বরিশাল ব্যুরো ॥ বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর ৪০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বরিশাল মহানগর ও জেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *