দিশার প্রেমিক রোহনকে ধরলেই বেরোবে জোড়া মৃত্যুর রহস্য: দাবি যুবরাজের

সম্প্রতি ড্রাগ কাণ্ডে ব্যস্ততা বাড়ায় ভাটা পড়েছে #জাস্টিসফরসুশান্ত-এ। খবরের শিরোনামে এখন তারকাদের মাদকাসক্তি-ই স্থান পাচ্ছে। এই বিষয়ে সিবিআইয়ের পক্ষ থেকেও কোনো মন্তব্য নেই। থমকে থাকা এই পরিস্থিতিতে সিবিআইয়ের নিস্তরঙ্গ তদন্তে নতুন মোড় এনে দিতে পারে যুবরাজ সিং-র ‘পরামর্শ’।

যুবরাজ সিং প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের বন্ধু। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সুশান্তের ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের প্রেমিক রোহনের খোঁজ পেলেই তদন্তের অনেক নতুন দিক খুলে যেতে পারে। সুশান্ত তদন্তে তিনি ‘হদিস’ দিলেন নতুন এই যোগসূত্রের।

যুবরাজ বলেন, “সিবিআইয়ের প্রথমে একটি এফআইআর দায়ের করা উচিত। এবার তদন্তের গতি বাড়ানোর সময় এসেছে। এত ধীর গতিতে তদন্ত হতে পারে না। খুব স্পষ্ট ভাবেই বোঝা যাচ্ছে, এটি জোড়া খুনের ঘটনা। আমরা রোহনের নারকো-অ্যানালিসিসের জন্য জোর দিচ্ছি। তাকে খুঁজে পাওয়া গেলেই সব পরিষ্কার হয়ে যাবে।”

দিশা ও রোহন

দিশা ও রোহন

সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত যে পথে এগোচ্ছে, তা নিয়ে সন্তুষ্ট হচ্ছে পারছেন না যুবরাজ। খানিকটা অধৈর্য হয়ে বলেন, “মাদকযোগ নিয়ে তদন্ত আসলে মূল তদন্ত থেকে মনোযোগ সরিয়ে দিচ্ছে। আমি সুশান্তের পরিবারকে অনুরোধ করব এই বিষয়ে আরো তৎপর এবং সরব হতে। বিকাশ সিং যদি দু’শো শতাংশ নিশ্চিত হয়ে বলেন, তাকে শ্বাসরোধ করেই খুন করা হয়েছে, তবে এবার তদন্ত দ্রুত গতিতে এগোন উচিত।”

সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে অনেক তথ্য লুকানো হচ্ছে বলে আশঙ্কা করছেন যুবরাজ। তার দাবি, সুশান্তকে নেশাগ্রস্ত করে অন্ধকারে রাখা হয়েছিলো। অভিনেতাকে তার পরিবারের সঙ্গেও দেখা করতে দেয়া হত না। এমনকি, টাকাও নয়ছয় করা হয় তার।

দিশার মৃত্যুর ছয় দিনের মাথায় আত্মহত্যা করেন সুশান্ত। অনেকেই মনে করেন দু’টি মৃত্যুর মধ্যে যোগ রয়েছে। এই রোহন রাই কি এই দুই মৃত্যুর ঘটনাকে যুক্ত করার সেতুবন্ধন? যুবরাজ আভাস দিচ্ছেন তেমনটাই।

Check Also

এক নজরে এটিএম শামসুজ্জামান

না ফেরার দেশে চলে গেলেন একু‌শে পদকপ্রাপ্ত প্রবীণ অভি‌নেতা এটিএম শামসুজ্জামান। শতাধিক চলচ্চিত্রের বহু খল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *