বিরামপুরে সৎ ও নিষ্ঠার সাথে মেয়াদ পূর্ণ লগ্নে ইউপি চেয়ারম্যান

বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি মোঃ রেজওয়ান আলী-দিনাজপুরের বিরামপুরে ইউপির উন্নয়নে
সৎ ও নিষ্ঠার সাথে মেয়াদ পূর্ণ লগ্নে চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান। তথ্য মতে জানা যায় যে,বিরামপুর উপজেলা অন্তর্গত ৪নং দিওড় ইউনিয়ন। অত্র ইউপির বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ইউনিয়ন সভাপতি ও চেয়ারম্যানের গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্ব নিয়ে দেশ ও জনগণের উন্নয়ন কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে মেয়াদের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়েছেন মর্মে জানা যায়।

চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান দির্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ইউনিয়ন সভাপতি ও তার পাশাপাশি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে থেকে ইউনিয়ন বাসির উন্নয়ন ও কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন বলে জনসাধারণের মতামত পোষন করেছেন।
এ বিষয়ে অত্র ইউনিয়নে পর্যবেক্ষণে জনসাধারণ বলেন চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান,ইউপির ৯টি ওয়ার্ডে সরকারের পক্ষ্য থেকে যে সব অনুদান এসেছে তাহা অতি বিচক্ষণতার সহিত বিতরণ করেছেন। নুতন করে বয়স্ক ভাতা,বিধুবা ভাতা,মাতৃত্বকালীন ভাতা অতি দক্ষতার সহিত বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন।
তারা আরও বলেন ইউনিয়নের মধ্যে রাস্তা,ঘাট,মসজিদ,মন্দির,মাদ্রাসা,এতিম খানা মাদ্রাসা,প্রতিটি ওয়ার্ড পর্যায় হাট, বাজার,পাড়া,মহল্লায় সৌর বিদূৎ আলো সংস্কৃার মূলক ব্যবস্হা ও আর্থিক সহযোগিতায় অতি জোরালো ভাবে কাজ করেছেন মর্মে জনসাধারণ মন্তব্য করেন।

কোভিট-১৯,করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারের নিকট থেকে বরাদ্দ চাল,ডাল, প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিগণের সাথে সাক্ষাৎ ও সমবেদনার পাশাপাশি বরাদ্দ প্রদান করেছেন। কোন অসহায়,গরীব,দূস্হ্য,এতিম ব্যক্তিগণ প্রতিনিয়ত তার সাহায্য ও সার্বিক সহযোগিতা গ্রহণ পূর্বক জীবিকা নির্বাহ করছেন।
চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান প্রতিনিয়ত ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হয়ে বিপদে পড়া মানুষের সমস্যা সমাধানের পথ সূগোম করে দেওয়াই ছিল তার একমাত্র নেশা।
জনসাধারণের প্রতিটি আবেদন তিনি সরেজমীনে তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করেছেন মর্মে অনেক পরিবার স্বস্তির নিঃশ্বাসে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছেন।
প্রতি নিয়ত তিনি সকাল ৯-১০ ঘটিকার মধ্যে তার অফিসে উপস্থিত হয়ে একটানা বৈকাল ৫টা পর্যন্ত সময় অতিবাহিত করেন। যে সকল জনসাধারণ অফিস সময়ে ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হতে পারে নাই তাদের কে তার নিজ বাস ভবনে আসার পথ উন্মুক্ত করে দিয়েছেন যেন কোন মানুষ তার সেবা থেকে বাদ না পড়েন।
ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ড সদস্য ও সদস্যা এবং দলীয় সভাপতি সাধারণ সম্পাদক জানিয়ে দিয়েছেন কোন জনগণ কোন প্রকার অভিযোগ নিয়ে আসা মাত্র পরিপূর্ণ সেবা যেন পায়, যে কোন সমস্যা হলেই যেন তাকে জানানো বা তার নিকট পাঠিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও ভুক্তভোগীগণ জানান।
এ বিষয়ে চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমানের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি মহোদয়ের দিকনির্দেশনা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ পন্থী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মন্ডলীর অনুপ্রেরণায় জনগণের উন্নয়নে কাজ করেছি।
আওয়ামী লীগে আমার একমাত্র পথচলা,আমি আমার জিবন দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে জনসাধারণের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছি,ভবিষ্যতে মৃত্যুর পূর্ব মহুর্ত পর্যন্ত কাজ করে যাব ইনশাল্লাহ। আল্লাহ তায়ালা আমাকে যেন মানুষের কল্যাণে কাজ করে যেতে পারি এমনই কামনা আল্লাহ তায়ালার নিকট।

Check Also

খানসামায় শুরু হল হাম-রুবেলা টিকাদান ক্যাম্পেইন-২০২০

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: সারাদেশের ন্যায় দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ৪১৫৫৫ জন শিশুকে হাম-রুবেলা টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *