ঢাবি অধ্যাপকের লেখা কলাম নিজের নামে প্রকাশের অভিযোগ বেরোবি ভিসির বিরুদ্ধে

ইভান চৌধুরী, বেরোবি প্রতিনিধি:
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড.
নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর বিরুদ্ধে অন্যের লেখা কলাম নিজের
নামে প্রকাশের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার নিজের একটি লেখা
হুবহু নকল করার অভিযোগ এনে ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে শেয়ার
করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও আওয়ামীলীগের
তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম মাহমুদ। অন্যের লেখা কলাম একজন
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হুবহু নকল করে নিজের নামে চালিয়ে দেয়া
নিয়ে ক্যাম্পাসসহ সারাদেশে চলছে সমালোচনার ঝড়।
ঢাবি অধ্যাপক ও আওয়ামীলীগের এই নেতা তার ব্যক্তিগত ফেসবুক
আইডিতে পিপলসনিউজ২৪.কম এর একটি লেখা শেয়ার করে বলেন-
‘আমার একটা লেখা কে হুবুহু নকল করা হয়েছে। এটি কোন ধরণের
কাজ আমি বুঝতে পারছিনা। পুরো লেখাটিই আমার দুই দিন
আগের একটি লেখার হুবুহু নকল যা বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে ভাইরাল
হয়েছিল। শুধু আমার নামের জায়গায় অন্য ব্যক্তির নাম যুক্ত করা হয়েছে।
এটি ঢ়ষধমরধৎরংস অর্থাৎ চৌর্যবৃত্তি কিনা এই প্রশ্ন আমি
আইনজ্ঞ এবং একাডেমিসিয়ান দের কাছে রাখলাম। ঢ়ষধমরধৎরংস অর্থাৎ
বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পত্তি চৌর্যবৃত্তি সম্পর্কে যাদের কোন ধারণা
নেই অথবা যারা স্বাভাবিকভাবেই নীতি নৈতিকতার কোন ধার ধারে
না, তাদের পক্ষেই এই ধরণের কাজ করা সম্ভব।’
আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম মাহমুদের পোস্টে কমেন্ট করে অনেকে এর
প্রতিবাদ জানিয়েছেন। খাজা নিজাম উদ্দিন নামের একজন ব্যক্তি
কমেন্টে বলেন- ‘ভাই, আপনার লেখাও যদি কপি করে! এসব কী হচ্ছে?
আমার ক্যারিয়ার বিষয়ক লেখাও অনেক রথি মহারথিরা নিজের নামে
চালিয়ে দিচ্ছেন। সেলিম ভাই, আপনি আইনের মানুষ। এটা নিয়ে
কিছু করেন। অন্তত একটা নোটিশ পাঠান।’

জাকিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি কমেন্ট করে বলেছেন- ‘লেখাটি
আমি ৫/৬ দিন একাধারে দেখেছি সেলিম মাহমুদের ফেইসবুক
পেইজে সর্ব প্রথম। ভদ্রবেশি চৌর্যবৃত্তি অত্যান্ত নিন্দনীয় অপরাধ।
ক্ষমার অযোগ্য তবুও ক্ষমা করে দেয়ার অনুরোধ করছি।’ মাহবুব আলম
নামের অপর একজন কমেন্ট করে বলেন- ‘লেখা কপি করে জনসম্মুখে
উপস্থাপন করে নিজেকে আপনার (সেলিম মাহমুদ) সমকক্ষ করার চেষ্টায়

লিপ্ত, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদকের কোন
বার্তা নিজের নামে চালিয়ে দেওয়া আওয়ামী লীগের তথ্য চুরি করার
শামিল নয় কি?
জুলহাস উদ্দীন নামের অন্য একজন কমেন্ট করে জানান- ‘এই ধরণের
জঘন্য কাজ করে নিজের সৃষ্টিশীলতার ভান্ডার সমৃদ্ধ করার অপচেষ্টার
প্রতি তীব্র নিন্দা ও ঘৃণ প্রদর্শণ করছি। হাসানুল মোর্শেদ ফাহিম
নামের আরেকজন কমেন্ট করে বলেন- ‘নির্বাক হয়ে গেলাম! আপনার
লিখাটা গত পরশুর। কম করে হলেও ৪/৫ টা অনলাইন নিউজ পোর্টালে
দেখলাম। এটা তো সাক্ষাৎ জোচ্চুরি।’ ইমাম হোসাইন ইমন নামের
অপর একজন কমেন্ট করেছেন- ‘এটা অগ্রহণযোগ্য ও নিন্দনীয়
একটা বিষয়। কারো লেখার সময় ও যোগ্যতা না থাকলে কার্টিসি না
দিয়ে অন্যের লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেয়া বড় ধরনের চৌর্যবৃত্তি ও
গর্হিত অপরাধ।’
এ ব্যাপারে জানতে পিপলসনিউজ২৪.কমের হেড অব নিউজ জুবায়ের
এমডি বলেন- উপাচার্য স্যারের প্রেস সহকারি লেখাটি আমাদের
পাঠিয়েছেন, আমরা ছাপিয়েছি। যদি এ ব্যাপারে আরো কিছু
জানার থাকে তাহলে উপাচার্য স্যারকে ফোন দেন। কিংবা সরাসরি
তার প্রেস সহকারির সাথে কথা বলেন। তবে, প্রেস সহকারির নাম ও
মোবাইল নাম্বার বলতে রাজি হয়নি পিপলসনিউজ২৪.কমের হেড অব
নিউজ জুবায়ের এমডি।
এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও আওয়ামী
লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর ড. সেলিম মাহমুদ
বলেন, মূলধারার গণমাধ্যমে আমার যে লেখা প্রকাশিত হয়েছে সেটা
আমার লিখিত বক্তব্য। সেটি হুবহু কপি করে একটি অনলাইন পত্রিকায়
বেরোবি ভিসি প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর বক্তব্য
হিসেবে প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি যে কাজটি করেছেন সেটি
অপরাধ। এ ধরনের কাজ একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বা শিক্ষিত
মানুষের কাছে কখনোই আশা করা যায় না।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড.
নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর দফতরে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। দফতর
থেকে জানানো হয় তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। এ বিষয়ে তাকে
একাধিকবার মোবাইল ফোন দিলে তিনি রিসিভ করেননি। ম্যাসেজে
তার বক্তব্যর জন্য যোগাযোগ করা হলেও তিনি উত্তর দেননি। দীর্ঘদিন
ধরে সাংবাদিকদের ফোন ভিসি রিসিভ করেন না বলেও অভিযোগ
রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

Check Also

১৭ ই সেপ্টেম্বর মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন সমূহের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি                                                                                                                 সেপ্টেম্বর ২০২১   আজ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, জাতীয় শহীদ মিনারে মহান শিক্ষা দিবস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *