ফরিদগঞ্জের লাউতলীতে ৫৫ শতক খাস জায়গা অবৈধ দখলদারের কবলে

ফরিদগঞ্জ উপজেলার লাউতলী গ্রামে ৫৫ শতক খাস জায়গায় অবৈধভাবে ভোগ দখল করে আসছে কৃষ্ণ গোপাল নামে এক বিত্তশালী ব্যক্তি। এই খাস জায়গার তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে তার বিরুদ্ধে উঠে এসেছে নানান চাঞ্চল্যকর তথ্য। দুই (২) পর্বের ধারাবাহিক প্রতিবেদনে আজ থাকছে ১ম পর্ব-

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকাররের ভূমি সংস্কার বোর্ড ( ভূমি মন্ত্রনালয়) এর তথ্যমতে চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার, জে.এল.নং – ৩১৭, মৌজা- লাউতলী, খতিয়ান নং – ৬৯. দাগ নং- ৯২০-  ৩০ শতক (বাড়ী), ৯২৬ – ১২ শতক এবং ৯১৯ – ১৩ শতকসহ মোট ৫৫ শতক খাস জায়গা, যাহার ভিপি লীজ মামলা নং – ১২৪/৭৩ – ৭৪। যোগেশ চন্দ্র দাস নামে এক ব্যক্তি  সরকারী কর পরিশোধ করে উক্ত ৫৫ শতক জায়গা ভোগ দখল করে আসছিল। তাহার মৃত্যুর পর তার চার ছেলে – স্বপন চন্দ্র দাস, তপন চন্দ্র দাস, খোকন চন্দ্র দাস, মিলন চন্দ্র দাস ইজারাদার হিসেবে উক্ত কর পরিশোধ করে এসেছিল। ডুপ্লিকেট কার্বন রশিদ (ডি, সি, আর) এর তথ্য অনুসারে যোগেশ চন্দ্র দাসের চার ছেলে ২০০৬ সাল পর্যন্ত উক্ত কর পরিশোধ করে ছিলেন যাহার বহি নং – ০০৪৫৫২ এবং রসিদ নং – ০৪৫৫১৬২।
সরকারী কর পরিশোধ করা সত্ত্বেও কৃষ্ণ গোপাল নামে ঐ প্রভাবশালী ব্যক্তি বাহুবলে বাড়ীর সকল লোককে একত্রিত করে গণপিটুনির মাধ্যমে যোগেশ চন্দ্র দাসকে উক্ত জায়গা থেকে উচ্ছেদ করেন, তথ্যমতে জানা যায় যোগেশ চন্দ্র দাস নামে ঐ ব্যক্তি প্রাণনাশের ভয়ে আতংকিত হয়ে মারা জান। তার মৃত্যুর পর তার ছেলেরা উক্ত জায়গা দখল করতে গিয়ে বার বার ব্যর্থ হন, এই বিষয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা ভূমি অফিসে অনেকবার অভিযোগ করেন, কিন্তু তদন্তে আসলেও টাকার বিনিময়ে সমস্ত তথ্য ধামাচাপা দেন কৃষ্ণ গোপাল নামে ঐ ব্যক্তি । এই বিষয় নিয়ে এলাকায় অনেক সালিশ ও দরবার হয়, তাতে কোন সুরাহ মিলেনি। অর্পিত সম্পত্তি আইনে কৃষ্ণ গোপাল চাঁদপুর দেওয়ানী আদালতে একাধিক মামলা করলেও আদালত তাহা নাখোঁজ করে বলে নিশ্চত হওয়া গেছে। এই ব্যাপারে কৃষ্ণ গোপাল জানান এটি কোন ভিপি সম্পত্তি নয়, ইহা তাদের নিজস্ব জায়গা। প্রসঙ্গক্রমে, এই জায়গা নিজস্ব হলে মামলা করার কোন প্রশ্নই আসেনা, তাহলে কেন তিনি মামলা করলেন তাহা সকলের জানার কথা। ৬৯ নং খতিয়ান ভূক্ত ৯২০ দাগে বাড়ীতে লীজের জায়গার উপর তিনি গড়ে তুলেন একটি বিশাল দালান এবং ভোগ করে চলছেন  সকল সুবিধা। এই বিষয়ে আরো তথ্য জানতে চোখ রাখুন আগামী পর্বে, আর জানতে থাকুন জটিল রহস্য

Check Also

ইভ্যালির ৩৩৯ কোটি টাকার খোঁজে দুদকের অনুসন্ধান শুরু

গ্রাহক ও মার্চেন্টদের কাছ থেকে ডিজিটাল কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির অগ্রিম নেওয়া প্রায় ৩৩৯ কোটি টাকার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *