আজ ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে ভোট

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপনির্বাচন আজ। যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ভোটগ্রহণ করা হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে।

ঢাকার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জিএম সাহতাবউদ্দিন বলেন, ভোটের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসারসহ নির্বাহী ও বিচারিক হাকিম নিয়োজিত রয়েছে।

জানা গেছে, ইসি সচিবালয়ের চাহিদা মোতাবেক ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ উপনির্বাচনের দিন যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও স্থাপনা ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে, সেগুলো বন্ধ থাকবে। সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকা এবং পার্শ্ববর্তী এলাকায় সংস্থা/প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ভোটারদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগদানে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করা হয়েছে।

ইসির জনসংযোগ পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান জানান, ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ উপনির্বাচনকে ঘিরে যানবাহন চলাচলে কড়াকড়ি আরোপ করে ইতোমধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। ১০ নভেম্বর দিবাগত (মঙ্গলবার) মধ্যরাত ১২টা থেকে ১৩ নভেম্বর (শুক্রবার) মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। পাশাপাশি বুধবার রাত ১২টা থেকে ১২ নভেম্বর দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত ট্রাক ও পিকআপ চলাচল করতে পারবে না। এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করার জন্য জেলা প্রশাসক এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্তৃপক্ষকে ক্ষমতা দিয়েছে ইসি। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমতিসাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী/তাদের নির্বাচনী এজেন্ট এবং দেশি/বিদেশি পর্যবেক্ষকদের ক্ষেত্রে এ কড়াকড়ি শিথিল করা যাবে। এ ছাড়া নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত সাংবাদিক, ভোটের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শক এবং অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক, টেলিযোগাযোগের যানবাহন নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। জাতীয় মহাসড়কে চলাচলরত এবং বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহে নিয়োজিত যানবাহনের ক্ষেত্রেও প্রয়োজনে এ নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা যাবে।

নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেন, ‘নির্বাচনে সব ধরনের সহিংসতা এড়াতে আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি। এই ভোট নিয়ে অন্য সময়ের চেয়ে ভোটারদের আগ্রহও বেশি দেখা যাচ্ছে। সুতরাং সব কিছু বিবেচনায় নিয়ে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ভোটে অনিয়ম করার চেষ্টা করলে যখন-তখন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেভাবেই আমরা নির্দেশনা দিয়েছি।’

ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখা জানায়, ঢাকা-১৮ আসনে মোট ভোটার ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৮৮ জন। এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ছয় প্রার্থী। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ হাবিব হাসান, বিএনপির এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন, জাতীয় পার্টির নাসির উদ্দিন সরকার, গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ, বাংলাদেশ কংগ্রেসের ওমর ফারুক ও প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) মবিবুল্লাহ বাহার। বিএনপিপ্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন আবদুল্লাহপুর মালেকা বানু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভোট দিবেন বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে সিরাজগঞ্জ-১ আসন গঠিত কাজীপুর, সদরের একাংশ ও একটি পৌরসভা নিয়ে। এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানভীর শাকিল জয় ও বিএনপির প্রার্থী মো. সেলিম রেজা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৪৫ হাজার ৬০৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ৬৪১ জন এবং নারী ভোটার এক লাখ ৭৩ হাজার ৯৬২ জন। ১৬৮টি কেন্দ্রে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাহারা খাতুন গত ৯ জুলাই মারা যাওয়ায় ঢাকা-১৮ আসন এবং মোহাম্মদ নাসিম ১৩ জুন মারা গেলে সিরাজগঞ্জ-১ আসন শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। পরে গত ২৮ সেপ্টেম্বর এ দুটি আসনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় এ আসন দুটিতে উপনির্বাচন হতে যাচ্ছে।

Check Also

ভারী বর্ষণের আভাস, পাহাড়ধসের শঙ্কা

প্রতিবেদক: টানা তিন দিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে অতিভারী বর্ষণ হচ্ছে, যা অব্যাহত থাকবে। ফলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *