বীরপ্রতীক তারামন বিবির দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী

বেলাল হোসেন রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশে ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম নারী মুক্তিযোদ্ধা বীরপ্রতীক তারামন বিবির আজ ১ডিসেম্বর তার দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি ২০১৮ সালের ১ডিসেম্বর শুক্রবার রাত ১টা ২৭ মিনিটে কুড়িগ্রাম জেলার রাজিবপুর উপজেলার শঙ্কর মাধবপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন।
মুক্তিযুদ্ধের সময় ১১নম্বর সেক্টরের হয়ে তারামন বিবি মুক্তিবাহিনীর জন্য রান্না, তাদের অস্ত্র লুকিয়ে রাখা,পাকিস্তানি বাহিনীর খবর সংগ্রহ করাসহ সম্মুখযুদ্ধে অংশ নেন।
কুড়িগ্রামের শংকর মাধবপুরে ১১ নম্বর সেক্টরের কমান্ডার আবু তাহেরের অধীনে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন বীরপ্রতীক তারামন বিবি।
তারামন বিবি এমনই এক প্রতীকী নাম যে, বাংলাদেশের অন্যান্য মহীয়সী নারীর নামের পাশে আজ তার নামটিও উচ্চারিত হয়।
মুক্তিযুদ্ধে তার এই অবদানের জন্য স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সরকার বীরপ্রতীক খেতাবে ভূষিত করেছিলেন।
অথচ মুক্তিযুদ্ধের পর এ মহীয়সী নারী দীর্ঘ প্রায় দুই যুগ ছিলেন লোকচক্ষুর অন্তরালে।

অবশেষে ১৯৯৫ সালের ১৯ ডিসেম্বর তৎকালীন সরকার বেগম খালেদা জিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে তারামন বিবির হাতে বীরপ্রতীক খেতাবের স্মারক তুলে দেন।

প্রসঙ্গত,বীরপ্রতীক তারামন বিবি ১৯৫৭ সালে কুড়িগ্রাম জেলার রাজীবপুর উপজেলার কাচারিপাড়া গ্রামে জম্নগ্রহণ। করেন। তার বাবার নাম মোঃ আবদুস সোবান মায়ের নাম কুলসুম বিবি এবং তার স্বামীর নাম আবদুল মজিদ মিয়া। তার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে।

Check Also

সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজারবাগ দরবার শরীফের বিবৃতি

সম্প্রতি সিআইডির একটি কথিত তদন্ত প্রতিবেদন এবং কয়েকটি মানববন্ধনকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যমে রাজারবাগ দরবার শরীফের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *