রাজশাহীর তানোরে আওয়ামী লীগের ১০ জনের প্রার্থী ঘোষণা

 
তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধি
রাজশাহীর তানোরে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র পদে
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নিয়ে বিশেষ বর্ধিত আয়োজন করা হয়। গত ৩ ডিসেম্বর বৃহস্প্রতিবার  তানোর পৌর সদরে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে তানোর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম  আজাদ প্রদিপ সরকারের সঞ্চালনায় আয়োজিত সভায়
উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমরুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াজির হাসান প্রতাপ সরকার  আবুল বাসার সুজন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাঃ আব্দুল আহাদ মন্ডল, কাউন্সিলর আব্দুল লতিফ মন্ডল, রাকবুল হাসান পাপুল সরকার, তানোর পৌর যুবলীগের সভাপতি রাজিব সরকার হিরো, সাধারণ সম্পাদক ওহাব সরদার ও  সাবেক সভাপতি ইকবাল মোল্লা প্রমুখ। এছাড়াও  পৌর আওয়ামী লীগের  সকল ইউনিটের সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে  সভার শুরুতেই ইমরুল হককে উদ্দেশ্যে করে নেতাকর্মীরা কঠোর সমালোচনা বক্তব্য দিয়ে তাকে বিশ্বাসঘাতক ও বেঈমান আ্যাঙ্খয়িত করে তার কাছে জানতে চাই এতোদিন তিনি কোথায় ছিলেন।আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ-২০২০ এমনকি জাতীয় কোনো কর্মসুচিতেও তাকে দেখা যায়নি। এছাড়াও জাতীয় সংসদ, জেলা পরিষদ, উপজেলা ও  ইউপি নির্বাচনে এরা নৌকার বিপক্ষে প্রকাশ্যে ভোট করেছে, এখন কি মুখ নিয়ে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাই সে কি এখন আদর্শিক আওয়ামী লীগে বা মুলধারায় রয়েছেন, তিনি কি বুকে হাত রেখে বলতে পারবেন যদি কোনো কারণে মনোনয়ন বঞ্চিত হয় তাহলে নৌকার বিপক্ষে ভোট করবেন না। তবে বক্তাগণ কঠোরভাবে নেতাদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এবার যদি কেউ দলের সীদ্ধান্ত অমান্য করে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কাজ করে তবে তার পাছার চামড়া তুলে মরিচবাটা দেয়া হবে। আর রাজনৈতিক বেঈমান ও কুলাঙ্গারদের তারা কোনো অবস্থাতেই মেনে নিবেন না। ওদিকে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের  ১০ জন নেতাকর্মীর(মেয়র প্রার্থী)  নাম জেলা কমিটির মাধ্যমে কেন্দ্র পাঠানোর সীদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এরা হলেন প্রসিদ্ধ ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক আবুল বাসার সুজন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমরুল হক, আইনবিষয়ক সম্পাদক এ্যাডঃ আব্দুল আহাদ মন্ডল, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  ওয়াজির হাসান প্রতাপ সরকার, তানোর পৌর  যুবলীগের সভাপতি রাজিব সরকার হিরো ও সাধারণ সম্পাদক ওহাব সরদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলহাসানুল রবিন সরকার ও মৃদুল কুমার ঘোষ, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আরব আলী,আরিফুজ্জামান বাচ্চু ও ইকবাল মোল্লা। এদিকে সকল প্রার্থী ওয়াদা করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকে নৌকা দিবেন তাকেই বিজয়ী করতে তারা সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবেন।  এছাড়াও এখন থেকে সকল প্রার্থী ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকার জন্য ভোট প্রার্থনা করে প্রতিদিন প্রতিটি মানুষের দৌরগোড়ায়  গিয়ে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও অর্জনের চিত্র তুলে ধরে নৌকার প্রচারণা করবেন।অন্যদিকে তৃণমুলের নেতা ও কর্মী-সমর্থকরা আবুল বাসার সুজনকে সমর্থন করেছে। এসব নেতাকর্মীরা বলছে, বিএনপির প্রার্থী মেয়র মিজানুর রহমান মিজানকে পরাজিত করে বিজয়ী হতে গেলে প্রার্থীর যে ধরণের সক্ষমতা প্রয়োজন সেটা কেবল মাত্র সুজনেরই রয়েছে। সেই বিবেচনায় সুজনই যোগ্য প্রার্থী কারণ এবার একটাই টার্গেট যেকোনো মুল্য মেয়রের চেয়ার আওয়ামী লীগের  দখলে নেয়া।।#

Check Also

তানোরে আমণখেতে পোকার আক্রমণ  দিশেহারা কৃষক

  তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধি রাজশাহীর তানোরে বোরো মৌসুমে ধান ও খড়ের বাম্পার ফলন এবং ভাল দাম পেয়েছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *