রৌমারীতে ঠিকাদারের গাফলতি, জনদূভোর্গ চরমে উপজেলা সমন্বয় সভায় সমালোচনার ঝড়

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে মেসার্স হামিদ ট্রেডার্স টেন্ডারে মাধ্যমে সড়ক রক্ষণা-বেক্ষণ ও গ্রামীন সংযোগ সড়কের উন্নতি প্রকল্পে কাজ পেয়ে গাফিলতি করে ধীরগতিতে কাজ করায় জনদূর্ভোগ চরমে উঠেছে। ফুঁষে উঠেছে সাধারণ জনগণ। এনিয়ে গতকাল উপজেলা সমন্বয় সভায় সমালোচনার ঝড় ওঠে।

রৌমারী উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানাযায়, ২০১৯-২০২০ইং অর্থ বছরের সড়ক রক্ষণা-বেক্ষণ প্রকল্পের আওতায় ৪৭ লাখ টাকা ব্যয়ে শৌলমারী বাজার হতে পাখিউড়া ব্রীজ পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়ক মেরামত ও গ্রামীণ সংযোগ প্রকল্পের উন্নতি প্রকল্পের আওতায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে দাঁতভাঙ্গা হতে রৌমারী কলেজ পাড়া ভায়া বাইটকামারী সড়কের উন্নতির কাজ পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স হামিদ ট্রেডার্স। প্রতিষ্ঠানটি কাজ শুরু করে ঠিকই কিন্তু কাজের গতি এতটাই ধীর যে পাঁচ বছরেও কাজ শেষ হবে না বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

বন্দবেড় ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুল কাদের সমন্বয় সভায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হামিদ ট্রেডার্স রৌমারীতে টেন্ডারে ৬/৭টা কাজ পেয়েছে, ফলে তার কোনো কাজের অগ্রতি নেই। দ্রুত কাজ শেষ না করতে পারলে টেন্ডার বাতিলের আহবান জানান তিনি।

দাঁতভাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক মৌলভী বলেন, দাঁতভাঙ্গা হতে রৌমারী কলেজ পাড়া ভায়া বাইটকামারী সড়কটি তিন ইউনিয়নের প্রধান সড়ক। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করতে গিয়ে চরম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন। প্রায় ৩ কিলোমিটার ঘুরে তাদের রৌমারী সদরে আসতে হচ্ছে। প্রতিনিয়ত তারা জনপ্রতিনিধিদের দোষারোপ করছেন। পাশাপাশি সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে। ওই ঠিকাদার কাজ না করলে তার লাইসেন্স বাতিল করার আহবান জানিয়ে বলেন তাকে যেন রৌমারীতে আর কোন কাজ না দেওয়া হয়।

এবিষয়ে মেসার্স হামিদ ট্রেডার্সের সত্বাধিকারি আব্দুল হামিদের সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি বলেন, আমি কেন কাজ করছি না সেটা অফিসকে বলেন। অফিস এবিষয়ে সব জানে।এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, টেন্ডারের পরে বন্যায় ব্যপক ক্ষতি হয়েছে সড়কটির ফলে রিভাইজ স্টিমেট করার কথা সেটা এখন পর্যন্ত করা হয়নি। এখন আমি কোন ডিজাইনে কাজ করব আপনি বলেন?

এব্যপারে রৌমারী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল জলিল সমন্বয় সভায় বলেন, এবিষয়ে আমি জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছি। তিনি তাকে দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য নোটিশ দিয়েছেন। আমি তার সাথে দেখা করে কাজটি দ্রুত শেষ করার জন্য অনুরোধ করেছি। আগামি কাল আবার নোটিশ দিব। এর পরেও কাজ না করলে। প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

এমপির যত রকম সেবা আছে আমার থেকে আাদায় করে নিবেন …. এড. নুরউদ্দীন চৌধুরী এমপি

 নূর মোহাম্মদঃ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা ৭ নং বশিকপুর ইউনিয়নের রোকনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের ভিত্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *