যুক্তরাষ্ট্রে বেসরকারি খাতে সবচেয়ে বেশি কৃষিজমির মালিক বিল গেটস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বের চতুর্থ ধনী ব্যক্তি মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস নিজের প্রোগ্রামিং দক্ষতার জন্য গোটা বিশ্বের পরিচিত মুখ। এখন তিনি কৃষিতেও নিজের দক্ষতা দেখাতে চাইছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বসের তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে বেসরকারি খাতে সবচেয়ে বেশি কৃষিজমির মালিক এখন বিল গেটস। এরই মধ্যে দেশটির প্রায় আড়াই লাখ একর কৃষিজমি কিনেছেন তিনি।

মার্কিন সাময়িকী ল্যান্ড রিপোর্টের তথ্যনুযায়ী, বিল গেটস ২ লাখ ৪২ হাজার কৃষিজমি কিনেছেন। এসব জমির বেশিরভাগই যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ও ওয়াশিংটনের অঞ্চলে।

ফোর্বসের তথ্যনুযায়ী, ১৮ টি অঙ্গরাজ্যে প্রায় ১১ হাজার ২০০ কোটি ডলারের (১২১ বিলিয়ন ডলার) জমি কিনেছেন বিল গেটস। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জমি রয়েছে লুইসিয়ানায় (৬৯,০৭১ একর), আরকানসাস ( ৪৭, ৯২৭ একর) এবং নেব্রাস্কাতে (২০,৫৮৮ একর) ।

এছাড়া ফিনিক্স, অ্যারিজোনার পশ্চিম পাশে ২৫ হাজার ৭৫০ একর ট্রানজিশনাল জমিতেও তার অংশ রয়েছে, যেটি একটি নতুন শহরতলি হিসেবে গড়ে উঠছে।

দ্য ল্যান্ড রিপোর্টের গবেষণা অনুসারে, গেটসের ব্যক্তিগত বিনিয়োগ সংস্থা ‘ক্যাসকেড’ এবং তিনি নিজেই ব্যক্তিগতভাবে এসব জমিতে বিনিয়োগ করছেন।

এছাড়া খাদ্য-সুরক্ষা সংস্থা ‘ইকোলাব’, ব্যবহৃত-গাড়ি খুচরা বিক্রেতা ‘ভুম’ এবং কানাডিয়ান জাতীয় রেলওয়ে এই খাতে বিনিয়োগ করেছে।

বিল গেটস একজন প্রযুক্তিবিদ হিসেবে গোটা বিশ্বে পরিচিত। হঠাৎ করে বিশ্বের একজন ধনী প্রযুক্তিবিদের এত বড় কৃষিজমির মালিক হয়ে ওঠা তাই অনেককেই বিস্মিত করেছে। তবে কৃষির প্রতি বিল গেটসের আগ্রহ এবারই প্রথমবার নয়।

এর আগে ২০০৮ সালে বিল ও তার স্ত্রী মেলিন্ডার ফাউন্ডেশন আফ্রিকা ও দক্ষিণ এশিয়ায় উচ্চ ফলন, টেকসই ক্ষুদ্র কৃষি উন্নয়নে ৩০ কোটি ৬০ লাখ ডলার অনুদান ঘোষণা করে। পরবর্তীতে ওই সংস্থার পক্ষ থেকে জলবায়ু পরিবর্তন এবং অধিক দুধ উৎপাদন নিয়ে ‘সুপার ফসলের’ বিকাশ ও সম্প্রসারণনেও বিনিয়োগ করা হয়।

বিল গেটস এত কৃষি জমিতে কী করবেন তা এখন পর্যন্ত পরিস্কার জানা যায়নি। তবে গেটস দম্পতির যে দাতব্য সংস্থা আছে সেটার কাজে লাগবে এমন উদ্দেশেই সেখানে কিছু করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তথ্যসূত্র: ফক্স বিজনেস।

Check Also

দুই দিন ধরে মৃত মায়ের পাশে শিশু, করোনার ভয়ে কাছে এলো না কেউ

করোনার আতঙ্কে মৃত মায়ের পাশেই দিন দুয়েক ধরে অভুক্ত হয়ে পড়ে রইল ১৮ মাসের শিশু। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *