জামালপুরে ইউপি সদস্যসহ তিন হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড, একজনের যাবজ্জীবন, ১২ জন খালাস

লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি
জামালপুরে ইউপি সদস্যসহ চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড ও
একজনের যাবজীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা
জজ আদালতের বিচারক জিন্নাৎ জাহান ঝুনু এই রায় দেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি আবুল কাশেম তারা জানান, সরিষাবাড়ী উপজেলায় ২০১৩
সালের ১৪ নভেম্বর বিকেলে পিংনা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নলসন্ধ্যা
গ্রামের বাসিন্দা মো. ফজলুর রহমান (৫০) ও তার সঙ্গী ইউসুফ (৫২) যমুনা নদীর
বাসুরিয়া খেয়াঘাট থেকে কোরবান আলী তালুকদারের (৬০) ইঞ্জিনচালিত
নৌকাযোগে বাড়ী ফিরছিলেন। চর নলসন্ধ্যা খেয়াঘাটের কাছে পৌছালে পূর্ব
শত্রæতার জেরে জলদস্যু আব্দুল হাইয়ের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত ইঞ্জিন চালিত
নৌকাযোগে তাদের উপর হামলা ও মারধর করে। একপর্যায়ে নৌকাসহ অপহরণ করে
যমুনা নদীর গভীরে নিয়ে যায় জলদস্যুরা। ঘটনার তিনদিন পরে ইউসুফ ও পাঁচদিন
পরে ফজলুর রহমানের মৃতদেহ যমুনা নদী থেকে উদ্ধার করা হলেও কোরবান আলী
নিখোঁজ রয়েছে। এ ব্যাপারে নিহত ফজলুর রহমানের স্ত্রী সুরাইয়া খাতুন (৪৫)
বাদী হয়ে আব্দুল হাইকে প্রধান আসামী করে ১৪ জনের বিরুদ্ধে সরিষাবাড়ী
থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ১২ জুলাই
চার্জশীট দাখিল করে সিআইডি। পরবর্তীতে মামলার সকল আসামীকে আটক করে
জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়। মামলায় ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যের ভিত্তিতে আসামী
বেলাল (৩৫) কে মৃত্যুদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমান, হুরমুজ আলী (৩৭) কে যাবজ্জীবন
কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ১২ জন কে খালাসের আাদেশ দেন অতিরিক্ত
জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক জিন্নাৎ জাহান ঝুনু। সকল আসামীর
উপিস্থিতিতেই এই রায় দেয়া হয়। মামলায় আসামী পক্ষের আইনজীবি ছিলেন
অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।

Check Also

পলাশবাড়ীতে নেশার টাকা না পেয়ে ছেলের হাতে বাবা খুন!!

বায়েজীদ (গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি) : গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে নেশার টাকা না দেওয়ায় মাদকসক্ত ছেলে ছাদেকুল ইসলামের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *