৩৬ দল, গ্রুপ পর্ব নেই, বৃহস্পতিবারে ম্যাচ… আর কী পাল্টালো চ্যাম্পিয়নস লিগে?

গত শুক্রবার উয়েফা প্রতিযোগিতা কমিটির প্রস্তাবনা পাঠানো পরপরই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল বড় পরিবর্তন আসছে চ্যাম্পিয়নস লিগে। যার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আজ (সোমবার) পাওয়া গেলো উয়েফা নির্বাহী কমিটির অনুমোদনের মাধ্যমে। সত্যিই বড় বদল এসেছে। শুধু দলের সংখ্যা বাড়েনি, চ্যাম্পিয়নস লিগের ফরম্যাটই পাল্টে গেছে!

অনেকদিন ধরে আলোচনায় থাকা ইউরোপিয়ান সুপার লিগ আয়োজনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এসেছে। ‍ফুটবলের দুই নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ফিফা ও উয়েফা ঘোর বিরোধী থাকা সত্বেও ‘বিদ্রোহী’ লিগে নাম লিখেছে ইউরোপের শীর্ষ ১২ ক্লাব। বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, জুভেন্টাস, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল- সর্বজয়ী ক্লাবগুলোর অংশগ্রহণ নিশ্চিতে হুমকির মুখে পড়ে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ। কারণ ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবেচেয়ে বড় প্রতিযোগিতায় প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করা হচ্ছে এই সুপার লিগকে। ফুটবল বিশ্বে তোলপাড় চলার মুহূর্তেই উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে নতুনত্ব যোগ করার ঘোষণা দিয়েছে।

এখনই অবশ্য নয়, পরিবর্তনটা আসবে ২০২৪ সাল থেকে। তার আগে এখনকার ফরম্যাটেই হবে প্রতিযোগিতা।

৩২ থেকে ৩৬ দল

নতুন রূপে দল বেড়ে করা হয়েছে ৩৬টি। এখন গ্রুপ পর্বে ৩২ দল নিয়ে হয় চ্যাম্পিয়নস লিগ। তবে আরও ক্লাবকে ইউরোপসেরা প্রতিযোগিতায় সুযোগ দিতে ও আকর্ষণীয় করতে উয়েফা আরও ৪ দল যোগ করেছে। এই ৩৬ দল নিয়েই শুরু হবে সিঙ্গেল লিগ পর্ব।

বৃহস্পতিবারে ম্যাচ

শুধু তা-ই নয়, দল বাড়ার সঙ্গে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ-ডেও বাড়ছে। এখন মাঝ সপ্তাহে, মানে মঙ্গলবার ও বুধবার হয় চ্যাম্পিয়নস লিগের খেলা। তবে নতুন ফরম্যাটে এই দুই দিনের সঙ্গে বৃহস্পতিবারও হবে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ। তাছাড়া লিগ পর্বেই যোগ করা হয়েছে প্লে-অফ।

নতুন ফরম্যাটে কী থাকছে?

এখন ৮ গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলে ৩২ দল। প্রত্যেক গ্রুপে থাকে ৪টি করে দল। সেখানে প্রত্যেক দল প্রত্যেকের সঙ্গে দুইবার মুখোমুখি হওয়ার পর শীর্ষে থাকা দুটি দল নিশ্চিত করে শেষ ষোলো। এভাবে প্রত্যেক গ্রুপ থেকে দুই দল মিলিয়ে পাওয়া যায় ১৬ দল। তবে ২০২৪ সাল থেকে গ্রুপ পর্বই থাকছে না! ৩৬ দল নিয়ে হবে সিঙ্গেল লিগ। এখানে প্রত্যেক দল আলাদা ১০ দলের সঙ্গে খেলবে ১০ ম্যাচ (৫টি হোম, ৫টি অ্যাওয়ে)। এই পর্বে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ ৮ দল সরাসরি চলে যাবে শেষ ষোলোতে।

আর টেবিলের ৯ থেকে ২৪ নম্বর দল খেলবে দুই লেগের প্লে-অফ। এই ১৬ দলের মধ্যে জয়ী ৮ দল যোগ দেবে আগেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করা ৮ দলের সঙ্গে। পরের অংশটা এখনকার চ্যাম্পিয়নস লিগের মতোই। শেষ ষোলো, কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল হয়ে ফাইনাল।

২৪ নম্বরের নিচে থাকা দলগুলোর কী হবে?

২৪ থেকে নিচে থাকা সব দল পুরোপুরি বিদায় নেবে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতা থেকে। এখনকার ফরম্যাটে গ্রুপ পর্বের সেরা দুই দল সরাসরি শেষ ষোলো নিশ্চিত করে, আর তৃতীয় দল নেমে যায় ইউরোপা লিগে। তবে নতুন ফরম্যাটে সুযোগ থাকছে না।

প্রতিপক্ষ নির্বাচন ও ম্যাচ সূচি

উয়েফার ক্লাব র‌্যাংকিংয়ের হিসাব অনুযায়ী পটে রাখা হবে দলগুলোকে। সেখানকার ড্রয়ের মাধ্যমে প্রতিদ্বন্দ্বী ও ম্যাচের সূচি পাবে দলগুলো।

Check Also

স্বামীকে বাঁচাতে মুখ দিয়ে অক্সিজেন দেয়ার চেষ্টা, ভাইরাল ছবি

সম্প্রতি ভারতের আগরার একটি ছবি চোখে পানি এনে দিয়েছে। স্ত্রীর সব চেষ্টা ব্যর্থ করে স্বামীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *